নামাজ-এ গুফাইলা পাঠের পদ্ধতি

নামাজ-এ গুফাইলা একটি মুস্তাহাব নামাজ যা মাগরিব ও এশার নামাজের মধ্যবর্তি সময়ে পড়তে হয়। নামাজটি হচ্ছে দুই রাকাত। প্রথম রাকাতে সুরা ফাতিহার পরে নিন্মোক্ত আয়াতটি পাঠ করতে হবে:

নামাজ-এ গুফাইলা পাঠের পদ্ধতি

এস, এ, এ

নামাজ-এ গুফাইলা একটি মুস্তাহাব নামাজ যা মাগরিব ও এশার নামাজের মধ্যবর্তি সময়ে পড়তে হয়। নামাজটি হচ্ছে দুই রাকাত। প্রথম রাকাতে সুরা ফাতিহার পরে নিন্মোক্ত আয়াতটি পাঠ করতে হবে:

 

وَ ذَا النُّونِ إِذْ ذَهَبَ مُغاضِباً فَظَنَّ أَنْ لَنْ نَقْدِرَ عَلَیْهِ فَنادى‏ فِی الظُّلُماتِ أَنْ لا إِلهَ إِلَّا أَنْتَ سُبْحانَکَ إِنِّی کُنْتُ مِنَ الظَّالِمِینَ. فَاسْتَجَبْنا لَهُ وَ نَجَّیْناهُ مِنَ الْغَمِّ وَ کَذلِکَ نُنْجِی الْمُؤْمِنِینَ.

 

অর্থ: এবং মাছওয়ালার কথা স্মরণ করুন তিনি ক্রুদ্ধ হয়ে চলে গিয়েছিলেন, অতঃপর মনে করেছিলেন যে, আমি তাঁকে ধৃত করতে পারব না। অতঃপর তিনি অন্ধকারের মধ্যে আহবান করলেনঃ তুমি ব্যতীত কোন উপাস্য নেই; তুমি নির্দোষ আমি গুনাহগার। অতঃপর আমি তাঁর আহবানে সাড়া দিলাম এবং তাঁকে দুশ্চিন্তা থেকে মুক্তি দিলাম। আমি এমনি ভাবে বিশ্ববাসীদেরকে মুক্তি দিয়ে থাকি। (সুরা আম্বিয়া, আয়াত নং ৮৭, ৮৮)

দ্বিতিয় রাকাতে সুরা ফাতিহার পরে নিন্মোক্ত আয়াতটি পাঠ করতে হবে:

وَ عِنْدَهُ مَفاتِحُ الْغَیْبِ لا یَعْلَمُها إِلَّا هُوَ وَ یَعْلَمُ ما فِی الْبَرِّ وَ الْبَحْرِ وَ ما تَسْقُطُ مِنْ وَرَقَةٍ إِلَّا یَعْلَمُها وَ لا حَبَّةٍ فِی ظُلُماتِ الْأَرْضِ وَ لا رَطْبٍ وَ لا یابِسٍ إِلَّا فِی کِتابٍ مُبِینٍ.

 অর্থ: তাঁর কাছেই অদৃশ্য জগতের চাবি রয়েছে। এ গুলো তিনি ব্যতীত কেউ জানে না। স্থলে ও জলে যা আছে, তিনিই জানেন। কোন পাতা ঝরে না; কিন্তু তিনি তা জানেন। কোন শস্য কণা মৃত্তিকার অন্ধকার অংশে পতিত হয় না এবং কোন আর্দ্র ও শুস্ক দ্রব্য পতিত হয় না; কিন্তু তা সব প্রকাশ্য গ্রন্থে রয়েছে। (সুরা আনআম, আয়াত নং ৫৯)

অতঃপর কুনুতে নিন্মোক্ত দোয়াটি পাঠ করতে হবে:

اللَّهُمَّ إِنِّی اسْأَلُکَ بِمَفاتِحِ الْغَیْبِ الَّتِى لا یَعْلَمُهَا الَّا انْتَ انْ تُصَلِّیَ عَلَى مُحَمَّدٍ وَ آلِ مُحَمَّدٍ وَ انْ تَفْعَلَ بِی کَذا وَ کَذا

(کَذا وَ کَذا) উক্ত স্থানে নিজের মনোবাসনাকে আল্লাহর কাছে চাইতে হবে। অতঃপর বলতে হবে:

اللَّهُمَّ انْتَ وَلِىُّ نِعْمَتِى وَ الْقادِرُ عَلَى طَلِبَتِى تَعْلَمُ حاجَتِى فَأسْأَلُکَ بِحَقِّ مُحَمّدٍ وَ آلِ مُحَمَّدٍ عَلَیْهِ وَ عَلَیْهِمُ السَّلامُ لَمَّا قَضَیْتَهَا لِی.

 অতঃপর রুকু, সেজদা, তাশাহুদ এবং সালামের মাধ্যমে নামাজ শেষ করতে হবে।