খোদার নেয়ামতের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করা -৩

খোদার নেয়ামতের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করা -৩

খোদার নেয়ামতের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করা -৩
দ্বিতীয়ঃ বাস্তবায়ানের অবস্থা আছে, অবস্থার বিবরণ হচ্ছে নেয়ামত দানকারী বিনয় ও মিনতি সহকারে দাঁড়ানো এবং নেয়ামত সমূহে আনন্দিত হওয়া, এই কারনে যে সমস্ত নেয়ামত আল্লাহ্‌ তার বান্দাদেরকে দান করেছেন এবং তার দলীল নিজে মানুষের অসতীত্ব, আর অবস্তার নিশানা এই যে বস্তু কাজে আনন্দিত হইয়ো না কিন্তু ঐ সমস্ত যা তোমার আল্লাহ্‌র সন্তুষ্টির কারণ হোক।
তৃতীয়ঃ আমল (কাজ) করা, আমল অবশ্যই তিন পর্যায়ে অর্থাৎ অন্তরে, মৌখিক এবং অঙ্গ-প্রত্যঙ্গয় প্রকাশ করুক।
অন্তরের আমল, তার মনোযোগ সন্মান ও হামদ ( প্রশংসা) মহান আল্লাহ্‌র জন্যে চিন্তা ও কাজ আর দয়ার আবদান, আল্লাহ্‌র সমস্ত বান্দাদের প্রতি নেকি ও কল্যাণ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া।
মৌখিকের আমল, শোকর, তাসবীহ ও কৃতজ্ঞতা আর আল্লাহ্‌র গুণ কীর্তন এবং ভাল কাজের প্রতি নির্দেশ দেওয়া এবং মন্দ কাজ হতে বিরত থাকার নির্দেশ দেওয়া।
এবং অঙ্গ-প্রত্যঙ্গর আমল, আল্লাহ্‌র এবাদতে প্রকাশ্য এবং গোপনিয় নেয়ামতের মাধ্যমে কাজ নেওয়া এবং আল্লাহ্‌র বিরধিতা ও গুনাহ হতে রক্ষা করা।
এই অর্থ অনুযায়ী যে শোকরের প্রকৃত ও সত্যিকার অর্থ হচ্ছে, পরিষ্কার হল যে পরিপুন্য গুণাবলীর মূল হতে আছে, এবং এর পরিপুন্য নেয়ামত কারিদের নিকটে অনেক কম আছে, যেরূপ কুরআন মজিদে এরশাদ হচ্ছেঃ
و قَليلٌ مِنْ عِبادِيَ الشَّكُور
আমার বান্দাদের মধ্যে অল্পসংখ্যকই কৃতজ্ঞ। সূরা সাবা আয়াত নং ১৩।

সূত্রঃ আনসারীয়ারেন তথ্যকেন্দ্র