ফিলিস্তিনি ক্ষেপণাস্ত্রর আতঙ্ক ইসরাইলের পরমাণু শহরে

ফিলিস্তিনি সংগ্রামী দলগুলো দিমোনা শহরে ইহুদিবাদী ইসরাইলের পরমাণু স্থাপনাকে টার্গেট করে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করার পর এই শহরের অধিবাসীদের জন্য সবগুলো আশ্রয়-কেন্দ্র খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ।

ফিলিস্তিনি ক্ষেপণাস্ত্রর আতঙ্ক ইসরাইলের পরমাণু শহরে
ফিলিস্তিনি সংগ্রামী দলগুলো দিমোনা শহরে ইহুদিবাদী ইসরাইলের পরমাণু স্থাপনাকে টার্গেট করে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করার পর এই শহরের অধিবাসীদের জন্য সবগুলো আশ্রয়-কেন্দ্র খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ।

দিমোনা শহরটি গাজার উত্তরে অবস্থিত।

ফিলিস্তিনিদের দু'টি ক্ষেপণাস্ত্র কয়েক দিন আগে দিমোনায় আঘাত হেনেছিল বলে খবর এসেছিল। তবে এইসব ক্ষেপণাস্ত্র শহরটির ঠিক কোথায় আঘাত হেনেছিল তা জানা যায় নি।

এর আগে ফিলিস্তিনিদের ক্ষেপণাস্ত্র হামলার মুখে অধিকৃত ফিলিস্তিন তথা ইসরাইলের মধ্য ও দক্ষিণাঞ্চলের আশ্রয়-কেন্দ্রগুলো খুলে দেয়ার কথা জানিয়েছিল একটি ইসরাইলি দৈনিক।

হামাসসহ ফিলিস্তিনের সংগ্রামী দলগুলো ইসরাইলি বিমান হামলার জবাবে ইসরাইলের দখলে থাকা শহরগুলোতে এ পর্যন্ত কয়েক ডজন ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে। গাজা থেকে এইসব শহরের কোনো কোনোটির দূরত্ব ছিল ৯০ থেকে ১০০ কিলোমিটার।

গাজায় গতকাল (মঙ্গলবার) ভোর থেকে শুরু হওয়া ইসরাইলি হামলায় অন্তত ২২ জন ফিলিস্তিনি শহীদ ও আহত হয়েছে ১০০ জন। হতাহতদের অনেকেই ছিল শিশু।
রেডিও তেহরান