৪ সৌদি রাজকন্যা জাতিসংঘের শরণাপন্ন হলেন

৩০ থেকে ৪২ বছর বয়স্ক সৌদি বাদশার ৪ কন্যা জাতিসংঘের উদ্দেশ্যে লেখা এক চিঠিতে উল্লেখ করেছেন, ইচ্ছার বিরুদ্ধে তাদেরকে প্রাসাদে বন্দী করে রাখা হয়েছে।

৪ সৌদি রাজকন্যা জাতিসংঘের শরণাপন্ন হলেন 

৩০ থেকে ৪২ বছর বয়স্ক সৌদি বাদশার ৪ কন্যা জাতিসংঘের উদ্দেশ্যে লেখা এক চিঠিতে উল্লেখ করেছেন, ইচ্ছার বিরুদ্ধে তাদেরকে প্রাসাদে বন্দী করে রাখা হয়েছে।
সৌদি আরবের ঐ চার রাজকন্যার মা –বহু বছর পূর্বে যিনি সৌদি বাদশা থেকে পৃথক হয়েছেন- এক চিঠিতে তার কন্যাদের জন্য সাহায্য কামনা করেছেন। সাহার (৪২), জাওয়াহির (৩৮) নামক দুই সৌদি রাজকন্যা তাদের চিঠিতে লিখেছেন যে, তাদের অপর দুই বোন মাহা ও হালা থেকে তাদেরকে পৃথক করে প্রাসাদে বন্দী করে রাখা হয়েছে।
চিঠিতে তারা হালা’র শারীরীক অবস্থার বিষয়ে উদ্বিগ্নতা প্রকাশ করে লিখেছেন : হালা বর্তমানে মানসিক সমস্যায় ভুগছে।
উল্লেখ্য, সৌদি আরবের আইন অনুযায়ী পিতা তার কন্যাদেরকে বাড়ীতে বন্দী করে রাখতে পারে। যখনই কোন নারী বাড়ী থেকে বের হতে চায় তখন তার পিতা, ভাই বা স্বামীকে অবশ্যই তার সাথে থাকতে হবে।
চিঠিতে তারা উল্লেখ করেছেন : তাদের সত্ভাইরা তাদের রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব পালন করেন।
রাজকন্যাদের ভাষ্যমতে, সৌদি আরবে দারিদ্রতার বিষয়ে প্রতিবাদ জানানোর কারণে তাদেরকে চাকচিক্যময় ও ঐশ্বর্যপূর্ণ জীবন থেকে বঞ্চিত করে বন্দী করে রাখা হয়েছে।
এখন দেখার বিষয় হচ্ছে যে, জাতিসংঘ এ বিষয়ে কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করে কি না।

সূত্রঃ বার্তা সংস্থা আবনা